[UPDATE] ১২ বছরের কিশোর খুনের ঘটনায় আটক বাবা

পশ্চিম বর্ধমান :
সোমবার রাত্রে পশ্চিম বর্ধমানের হীরাপুর থানার চিত্রা মোড়ের পাঞ্জাবি পাড়ায় ১২ বছরের কিশোর স্বর্ণদীপ সিং কোহলান গুলিবিদ্ধ হয়ে রহস্যজনক ভাবে খুন হয়। খুনের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়, পুলিশ স্বর্ণদীপের বাবা ভুপিন্দার সিং কোহলান কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে নিয়ে গেছে। সরণদীপের বাবা ভুপিন্দার সিং যদিও জানান তিনি ছেলের জন্য জলখাবার আনতে বাইরে গিয়েছিলেন ঘরে তালা লাগিয়ে ফিরে এসে ছেলেকে রক্তান্ত অবস্থায় দেখে প্রতিবেশীদের সাহায্যে জেলা হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ মৃত স্বর্নদীপের বাড়ী থেকে একটা আগ্নেয়াস্ত্র, বুলেটের খোল উদ্ধার করেছে। ভুপিন্দার সিং র ভাই মনিন্দার সিং কোহলান জানান ২০১২ সালে ভেলোরে তার বৌদি মারা যাবার পর ছেলেকে নিয়ে থাকতো।ছেলে গুরুদোয়ারা স্কুলে পড়তো। বদমেজাজি হবার কারণে এলাকার বাসিন্দাদের সাথে ভালো ব্যবহার ছিল না এমনকি নিজের ভাইয়ের সাথে সম্পর্ক ছিল না। কয়েক বছর আগে নিজের ভাইকে মারতে উদ্যত হয়েছিল। পুলিশ প্রশাসন থেকে জানা যায় তারা ঘটনার তদন্তে নেমেছে প্রথমত আগ্নেয়াস্ত্র ভুপিন্দার এর কাছে কোথা থেকে এলো, কোন অবৈধ ব্যাবসায়ে জড়িত কিনা এবং কোন মহিলার সাথে অবৈধ প্রণয়ে জড়িয়ে পড়েছে কিনা এই তিনটা সূত্র ধরে এগোচ্ছে। ময়নাতদন্তের পর জানা যায় খুব কাছ থেকে গুলি করা হয়েছে এবং গুলিটা মাথার পেছন দিক দিয়ে বার হয়ে গেছে। পুলিশ ভুপিন্দার সিং এর দেওয়া বক্তব্যে ধন্দে পড়েছে সে জানিয়েছিল ঘরে তালা লাগিয়ে দোকানে গিয়েছিল, ঘরে ছেলে প্রায় একাই থাকতো কোনদিন তালা লাগিয়ে যেত না এবং গুলি যেভাবে কপালে লেগেছিল তাতে জানালার কাছে গেলে তবেই ঐ জায়গায় গুলি লাগা সম্বভ। পুলিশ প্রশাসন তদন্ত করছে।




%d bloggers like this: