আমফানের ক্ষতি কাটাতে সবুজে নজর অন্তরার

মহিষাদল: অন্তরা জানা। মহিষাদল গড়কমলপুরের বাসিন্দা। পেশায় একজন শিক্ষিকা। শিক্ষিকা হলেও ছোট থেকেই গাছে প্রতি আগ্রহ। দাদু বাড়িতে বাগান তৈরি করেছিলো। দাদুর পাশে থেকে দেখতাম বিভিন্ন ধরনের চারাগাছ লাগানো ও পরিচর্চা করা। সেই থেকে আগ্রহ আরো বেড়ে যায়। পরে স্বামীর বাড়িতে এসে বাড়িকে একটি আস্ত বাগান বানিয়ে ফেলেছেন। সেই বাগানে নিত্যপ্রয়োজনীয় শাকসব্জী থেকে পান, কুমড়ো বিভিন্ন ধরনের ফুলে ভরিয়ে তুলেছেন। স্কুলের ফাঁকা সময়ে সারাক্ষণ গাছ নিয়ে পরিচর্চায় ব্যস্ত থাকেন অন্তরাদেবি।বর্তমান সময়ে শাকসব্জী থেকে ফুল করে প্রায় ৫০ হাজার গাছ রয়েছে তার বাগানে। ভোর পাঁচটা থেকে উঠে গাছের পরিচর্চা যেমন করেন তেমনি রাতেও বাড়ি ফিরে গাছের পরিচর্চা করে থাকেন।তিনি মনে করেন আমফানে অনেক গাছ নষ্ট হয়েছে তাই আমাদের সবুজ পৃথিবী গড়ার জন্য গাছ লাগানোর প্রয়োজনীয় রয়েছে। তাই সকলে নিজের সাধ্যমতো গাছ লাগানোর আহ্বান জানান। পাড়ার লোকের ফুল বৌমা নামেই জানেন। কারন প্রতিবেশীরা তাঁকে সারাক্ষণ ফুল পরিচর্চা করতে দেখে।




%d bloggers like this: