শহর পরিচ্ছন্ন করতে ভবঘুরেদের ইন্দোরের বাইরে ফেলে দিলেন পুরকর্মীরা, ভাইরাল ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন: দেশকে পরিচ্ছন্ন রাখার বাণী প্রায় সময় উচ্চারিত করা হয়। কেন্দ্রের স্বচ্ছ ভারত অভিযান-এও সামিল হয়েছিলেন দেশবাসী। গত ৪ বছর ধরে দেশের পরিচ্ছন্নতম শহর হিসেবে তকমা পেয়ে চলেছে ইন্দোর। এবার সেখানে দেখা গেল এক অমানবিক ঘটনা। একটি ভিডিওতে সেই ছবি ধরা পড়ল। দেখা গেল, সেখানে এক শ্রেণির পুরকর্মী কিছু বৃদ্ধ গৃহহীন মানুষদের ট্রাকে চড়িয়ে শহরের বাইরে ফেলে দিয়ে আসার চেষ্টা করছেন। আর সেই কথা জানাজানি হওয়ার পরই বরখাস্ত করা হল প্রশাসন ২ পুর আধিকারিককে। এবং সাসপেন্ড করা হয়েছে ডেপুটি কমিশনারকে। ‘হীরক রাজার দেশে’ ছবিতে যে দৃশ্য দেখা গিয়েছিল, সেই ছবি এবার বাস্তবে দেখা মিলল। ছবিতে দেখা গিয়েছিল, বর্ষপূর্তি উৎসব উপলক্ষ্যে বাইরের অতিথিদের কাছে সব কিছু সুন্দর, ফিটফাট দেখাতে হবে। তাই যত রাজ্যের ভিখারি, গরিবগুর্বো ছিল, তাদের সকলকে শহরের বাইরে মাঠের ওপর ছুঁড়ে ফেলে দেয় রক্ষীরা। সেই একই দৃশ্য ইন্দোরের এই ভিডিওতেও দেখা গেল।

ভিডিও দেখে এই ধারণাই মাথায় আসছে, শহর পরিচ্ছন্ন করতে রাস্তায় থাকা ভবঘুরেদের ট্রাকে করে শহরের বাইরে হাইওয়ের ধারে ফেলে দেওয়ার চেষ্টা করছেন ইন্দোরের পুরকর্মীরা। প্রথমে শহরের নানা জায়গা থেকে এই ভবঘুরেদের ধরে আনা হয়। তারপর তাদের ট্রাকে করে শহরের বাইরে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল। আর সেটাই ক্ষিপ্রা এলাকার গ্রামের মানুষ টের পান। তারপরই এভাবে অসহায় মানুষগুলোকে শীতের মধ্যে শহর থেকে দূর করে দেওয়ায় প্রবল আপত্তি জানান। গ্রামবাসীদের চাপে পুরকর্মীরা বাধ্য হন তাঁদের ইন্দোর ফিরিয়ে নিয়ে যেতে। সেই গ্রামের সম্ভবত স্থানীয় বাসিন্দারাই ঘটনার ভিডিও তুলেছেন, তারপর সেগুলি অনলাইনে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। ভিডিওতে পরিষ্কার দেখা যায়, ইন্দোরের পুরকর্মীরা ট্রাক থেকে রাস্তার ধারে তাঁদের জোর করে নামিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। ঘটনাস্থলে স্থানীয় বাসিন্দারা জড়ো হয়ে প্রবল প্রতিবাদ করেন। এরূপ অমানসিক পদক্ষেপ সত্যি হতবাক করে দেয় সকলকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও প্রখাশয়ে আসার সাথে সাথে সকলেই এর তীব্র নিন্দা করেন।

যদিও এই অভিযোগ স্বীকার করেননি প্রশাসন আধিকারিকরা। ইন্দোর পুরসভার অ্যাডিশনাল কমিশনার অভয় রজনগাঁওকরের দাবি, পুরকর্মীরা ওই গৃহহীনদের সেখান থেকে নাইট শেল্টারে নিয়ে যাচ্ছিলেন। ভবঘুরেদের শহরের বাইরে ফেলে দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন তিনি। উক্ত ঘটনার তীব্র সমালোচনা করে কংগ্রেস। তাদের বক্তব্য, “শহর পরিষ্কারের নামে গৃহহারা, বৃদ্ধ মানুষদের এই ঠান্ডায় শহরের বাইরে ফেলে আসার চেষ্টা করছে ইন্দোর পুরসভা। এটাই বিজেপির নীতি, এভাবেই ওরা লালকৃষ্ণ আডবাণী, মুরলীমনোহর জোশী, যশবন্ত সিনহার মত বয়স্ক নেতাদের ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছে”। এরূপ নিন্দনীয় ঘটনার কারণে বরখাস্ত করা হয়েছে প্রশাসন ২ পুর আধিকারিককে এবং সাসপেন্ড করা হয়েছে ডেপুটি কমিশনারকেও।

পুরো ঘটনাটি এবং তার কারণ যদিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এরূপ পরিস্থিতি দেখে রাজ্যের বিজেপি সরকার বেশ সক্রিয় হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান ঘটনার ভিডিওতে দেখা যাওয়া সকল পুরকর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। ইতিমধ্যে পুরসভা স্থানীয় একটি নাইট শেল্টারের দুই চুক্তিভিত্তিক কর্মীকে বরখাস্ত করেছে, সাসপেন্ড করা হয়েছে ডেপুটি কমিশনার প্রতাপ সোলাঙ্কিকে। এনিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, “বয়স্কদের প্রতি অমানবিক ব্যবহার কোনওমতেই বরদাস্ত করা হবে না। এটাই আমাদের সংস্কৃতি এবং মানব ধর্ম”।




%d bloggers like this: