রাজধানীতেই প্রথম গড়াবে চালকবিহীন মেট্রোর চাকা, উদ্ভোধনে প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন, চালক ছাড়াই এই প্রথম দেশে গড়াবে ট্রেনের চাকা। রাজধানী দিল্লির হাত ধরে এই নয়া পদক্ষেপের শুরু। বহুদিন ধরে দিল্লিতে চালক ছাড়াই মেট্রো তৈরী করা হচ্ছিল। এবার রাজধানী দিল্লির মেট্রোর হাত ধরে প্রথম এই ঘটনার সাক্ষী থাকতে চলেছে গোটা দেশ। আজ অর্থাৎ সোমবার ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে দিল্লি মেট্রোর ম্যাজেন্ডা লাইনে স্বয়ংক্রিয় মেট্রো ট্রেন পরিষেবা উদ্বোধন করছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পাশাপাশি জানা গিয়েছে, মোদী বিমানবন্দর এক্সপ্রেস লাইনে ন্যাশনল কমন মোবিলিটি কার্ড তথা এনসিএমসি-এর পরিষেবা চালু করবেন। সূত্রের খবর আজ সকাল ১১টায় এই উদ্বোধন হবে বলে জানায় প্রধানমন্ত্রীর দফতর।

এই চালকবিহীন ট্রেন দিল্লির জনকপুরী ওয়েস্ট থেকে বোটানিক্যাল গার্ডেন পর্যন্ত দীর্ঘ ৩৭ কিলোমিটার রাস্তা অতিক্রম করবে। বৃহস্পতিবার দিল্লি মেট্রো রেল কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে এই ঘোষণা করা হয়। ওয়া এই পরিষেবার দ্বারা অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সুবিধা পেতে চলেছেন যাত্রীরা। স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে চালকহীন মেট্রো চলবে বলে জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর দফতর। যা একেবারই সুরক্ষিত। ২০২১ সালের মাঝামাঝি সময়ে পিঙ্ক লাইনেও চালকবিহীন ট্রেন পরিষেবা শুরু হবে, বলে আশা করা হচ্ছে। মজলিস পার্ক থেকে শিববিহার পর্যন্ত ছুটবে স্বয়ংক্রিয় চালকবিহীন এই মেট্রো।

এখন পর্যন্ত ভারতের বৃহত্তম মেট্রো এবং দেশের সবচেয়ে পুরনো মেট্রো সার্ভিসগুলির মধ্যে দ্বিতীয় হল দিল্লি মেট্রো। করোনা আবহে বহুদিন বন্ধ ছিল এই মেট্রো পরিষেবা, তারপর একাধিক বিধি আরোপ করেছে দিল্লি মেট্রো রেল কর্পোরেশন। কোভিড পরিস্থিতিতে সংক্রমণ রুখতে নগদহীন পদ্ধতি ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া যাত্রীদের। কর্তৃপক্ষ টোকেন বিক্রির অনুমোদন দেয়নি। কেন্দ্রের এই উদ্যোগ দেশের পরিবহণ ব্যবস্থায় গতি আনবে ও এক নতুন যুগের সূচনা করবে। অন্যদিকে, দিল্লি মেট্রোর দাবি, দুনিয়ায় বিভিন্ন শহরে ৭ শতাংশ মেট্রো রেল চালকবিহীন চলে। এবার দিল্লিতেও তা চালু হতে চলেছে, তাই এবার সেই এলিট ক্লাবে ঢুকে পড়বে ভারতীয় মেট্রো রেল।

বর্তমানে ডিএমআরসি ৩৯০ কিলোমিটার মধ্যে ১১ টি করিডোরের ২৮৫ টি স্টেশনের মধ্যে যাত্রীদের মেট্রো সুবিধা সরবরাহ করছে। দিল্লি মেট্রোর দৈনিক যাত্রীসংখ্যা ২৬ লক্ষেরও বেশি। তাই মনে করা হচ্ছে, স্বয়ংক্রিয় এই মেট্রো পরিষেবা চালু হলে দিল্লির মেট্রো রেল কর্পোরেশন বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় মেট্রো পরিষেবাগুলির মধ্যে চলে আসতে পারে। ডিএমআরসি এক বিবৃতিতে বলেছে, ন্যাশনল কমন মোবিলিটি কার্ডের বিনিময়ে যাত্রীরা ২৩ কিলোমিটার দীর্ঘ বিমানবন্দর এক্সপ্রেস লাইনে যাতায়াত করা যাবে। অর্থাৎ নয়াদিল্লি থেকে দ্বারকা সেক্টর ২১ স্টেশন পর্যন্ত যাতায়াতের ক্ষেত্রে যাত্রীরা এই কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন। ২০২২ সালের মধ্যে দিল্লি মেট্রোর পুরো নেটওয়ার্কে এই সুবিধা পাওয়া যাবে বলে প্রধানমন্ত্রীর দফতর সূত্রে খবর।




%d bloggers like this: