সুশান্ত সিং কে চিপস এর বিজ্ঞাপনে অপমান, বয়কটের দাবীতে হ্যাশট্যাগ চালু

শ্রীশা চৌধুরী: সুশান্ত সিংহ রাজপুত সংক্রান্ত কোন প্রসঙ্গ ই ওঠেনি বিজ্ঞাপনে, এক সদ্য পাস করা কলেজ ছাত্রের ভূমিকায় দেখা যায় রণবীর সিংকে একটি স্বনামধন্য কোম্পানির চিপস এর বিজ্ঞাপনে। সেই বিজ্ঞাপন নিয়ে শোরগোল পড়ে যায় নেট দুনিয়ায়। শোরগোল ওঠে যে এই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অপমান করা হয়েছে স্বনামধন্য প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত কে। রণবীর সিং অপমান করেছেন সুশান্ত সিং রাজপুত কে। খেঁপে উঠেছে গোটা নেট দুনিয়া ৷

সুশান্ত সিং রাজপুত সম্পর্কিত কি ছিল ওই বিজ্ঞাপনে ?

প্রয়াত অভিনেতা কে নিয়ে মজা করা হয়েছে বলে অভিযোগ রণবীর সিং এর নতুন চিপসের বিজ্ঞাপনে। চিপসের বিজ্ঞাপনে রণবীরের ডায়লগে ‘অ্যালগরিদম’ ‘ফোটনের’ মত শব্দ কেন থাকবে? প্রশ্ন উঠেছে যে সুশান্ত সিংহ রাজপুত কে ব্যঙ্গ করার চেষ্টা করেছেন এই বিজ্ঞাপনের অভিনেতা ৷

কিন্তু সুশান্ত সংক্রান্ত কোন প্রসঙ্গে ওঠেনি বিজ্ঞাপনের কোথাও। রণবীরকে এক পাস করা কলেজ ছাত্রের ভূমিকায় দেখা গেল এক স্বনামধন্য কোম্পানির চিপস এর বিজ্ঞাপনে। ওই বিজ্ঞাপনে দেখা যায় রণবীরকে সকলেরই এক প্রশ্ন, “আরে এবার কী করবে ভাবছ?’। এই পরিস্থিতিতে তিতিবিরক্ত রণবীরের মাথায় এক বুদ্ধি খেলে যায়। সে পদার্থবিদ্যার নানারকম টার্মস ব্যবহার করে একটা জগাখিচুড়ি উত্তর দেয়। তাতে এক্কেবারে ঘাবড়ে যায় সকলে।

কেন এই বিজ্ঞাপন আর সুশান্ত সিং কে ঘিরে বিতর্ক সৃষ্টি হল?

সুশান্ত ভক্তরা দাবি করে যে পদার্থবিদ্যা প্রিয় ছিল প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের। সেইজন্য নাকি এমন ডায়ালগ বসানো হয়েছে রণবীরের মুখে। এই বিজ্ঞাপন সামনে আসার পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় #BoycottBingo হ্যাশট্যাগ বহুল ব্যবহৃত হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে অনেকে আবার রণবীরকে ব্যঙ্গ করেছে শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে।

এই নিয়ে হইচই পড়ে গিয়াছে নেটিজেনদের মধ্যে। এই নিয়ে চিপস বিজ্ঞাপন এই নিয়েছে প্রস্তুতকারী সংস্থা আইটিসির দাবি, এই বিজ্ঞাপনটি শ্যুট করা হয় ২০১৯ এর অক্টোবরে। কিন্তু করোনাকালে বাজারে আনা সম্ভব হয়নি ওই স্নাকস। তাই সুশান্তের মৃত্যু বা সুশান্ত, এগুলোর সঙ্গে এই বিজ্ঞাপনের কোনও সম্পর্ক নেই।




%d bloggers like this: