Splusnews Kolkata
মঙ্গলবার , ২৫ জানুয়ারি ২০২২ | ২৬শে বৈশাখ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. আন্তর্জাতিক
  2. কলকাতা
  3. খেলাধুলা
  4. চাকরী
  5. ট্রেন্ড
  6. দেশ
  7. পশ্চিমবঙ্গ
  8. প্রযুক্তি
  9. বানিজ্য
  10. বাংলাদেশ
  11. বিনোদন
  12. বিশেষ
  13. ভাইরাল
  14. মতামত
  15. রাজনীতি

জাতি বিদ্বেষমূলক মন্তব্য করার অভিযোগে অবশেষে গ্রেফতার অধ্যাপক!

প্রতিবেদক
splusnews
জানুয়ারি ২৫, ২০২২ ৩:১৭ পূর্বাহ্ণ
জাতি বিদ্বেষমূলক মন্তব্য করার অভিযোগে অবশেষে গ্রেফতার অধ্যাপক!

তারক হরি, পশ্চিম মেদিনীপুর : নিজেরই কলেজের অধ্যাপকের বিরুদ্ধে জাতিবিদ্বেষ গত আচরণ ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ তুলে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছিলেন সবং কলেজের অধ্যাপিকা পাপিয়া মান্ডি। জাতি বিদ্বেষমূলক মন্তব্য করার অভিযোগে গত ১৭ ই ডিসেম্বর কলেজ থেকে বরখাস্ত করা হয় অধ্যাপক নির্মল বেরাকে। জানানো হয়েছিল পরবর্তী নির্দেশ না আসা অবধি তিনি কলেজে যেতে পারবেন না।

ঘটনার সূত্রপাত হয়েছিল বেশ কয়েক মাস আগে!করোনা কালে একটি অনলাইন ক্লাস চলার সময়ে আদিবাসী বলতে কাদের বোঝায়? এই প্রশ্নের উত্তরে অধ্যাপিকা পাপিয়া মান্ডি যখন পড়ুয়াদের বলেছিলেন ‘যে আদিবাসী বলতে দেশের প্রাচীনতম আদিবাসীদের বোঝায়’, তখন সহকর্মী অধ্যাপক নির্মল বেরা ওই অনলাইন ক্লাসে পড়ুয়াদের উপস্থিতিতে জানান যে, অধ্যাপিকা পড়ুয়াদের ভুল পড়াচ্ছেন এবং অধ্যাপক বেরা ওই অনলাইন ক্লাসেই বলেন যে, “যারা গাছে গাছে ঝুলে তারাই আদিবাসী”! অধ্যাপিকা পাপিয়া মান্ডি অভিযোগ করেন যে তিনি জাতিগত পরিচয় তপশিলি উপজাতিভুক্ত হওয়ায় তার সহকর্মী অধ্যাপক ড: নির্মল বেরা তাকে প্রায়ই জাতি পরিচয় তুলে ব্যঙ্গ-বিদ্রূপ করে এবং খুব সুচারু ও নিপুণ ভাবে মানসিক হেনস্থা করে থাকেন, যা এক প্রকার নির্যাতনের সমান। অধ্যাপক বেরার এই আচরণের বিষয়টি কলেজের অধ্যক্ষকে জানানো হলেও কোনও এক অজানা কারণে তিনিও কার্যত নিশ্চুপ থেকেছেন।
এদিকে এই ঘটনায় জল গড়ায় বহু দূর! গত সেপ্টেম্বর মাসেই সারাদেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অধ্যাপক, অধ্যাপিকা, অধ্যক্ষ ,গবেষক মিলিয়ে প্রায় ১৪০ জন বিশিষ্ট শিক্ষাব্রতী পাপিয়া মন্ডি’র পাশে দাঁড়ান। এক স্বাক্ষরিত পত্র রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু কেও পাঠানো হয় । পাশাপাশি দেশজুড়ে শুরু হয় জনমত।
এ ঘটনায় গর্জে উঠেছিল আদিবাসী সমাজ।তদন্তের গড়িমসি করা হচ্ছে অভিযোগ তুলে আসরে নামে আদিবাসী সমাজ ও সংস্কৃতি সংগঠন ভারত জাকাত মাঝি পারগানা মহল।এই সংগঠনের তরফে ১৩ ই ডিসেম্বর থেকে অনির্দিষ্ট কালের জন্য সবং কলেজ স্তব্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা করে। এরপরই নড়েচড়ে বসে পুলিশ প্রশাসন।
শেষ অবধি এই শিক্ষাকূল কলঙ্কিত ঘটনার অধ্যায় শেষ লগ্নে স্থিতি হল! পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং সজনীকান্ত মহাবিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক নির্মল বেরাকে অবশেষে গ্রেফতার করলো সবং থানার পুলিশ। সোমবার তাঁকে বাড়ি থেকে থানায় নিয়ে আসা হয়, সেখানেই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ সূত্রে খবর,তপশিলি জাতি ও উপজাতি নিপিড়ন বিরোধী আইনে অধ্যাপককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সর্বশেষ - বিনোদন

আপনার জন্য নির্বাচিত