কঠোর হল কলকাতা পুলিশ, মদ খেয়ে বেসামাল হলেই করবে হাসপাতালে ভর্তি

নিজস্ব সংবাদদাতা, রাতের শহরে সাবধানে চালাতে হবে গাড়ি। একটু বেসামাল হয়েছেন কি, যেতে হবে হাসপাতালে। হ্যাঁ এরকমই নিয়ম চালু করল কলকাতা পুলিশ। করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে অনেকদিন ধরেই বন্ধ ব্রেথ অ্যানালাইজার। বিশেষত এই যন্ত্রটির মাধ্যমেই শহরের মদ্যপ ব্যক্তিদের শায়েস্তা করত কলকাতা পুলিশ।

ভাইরাস সংক্রমণের ভয়েই এতদিন বন্ধ রাখা হয়েছিল ব্রেথ অ্যানালাইজার। তবে এবার সেই মেশিনের পরিবর্তে মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালালে সরাসরি যেতে হবে হাসপাতালে।

আপনি মদ পান করেছেন কিনা তা পরীক্ষা করার জন্য সরাসরি হাসপাতালে? হ্যাঁ ঠিক তাই, করোনা পরিস্থিতিতে অনেকদিন ধরেই বন্ধ ব্রেথ অ্যানালাইজার। রাতের শহরের বেপরোয়া গাড়ির চালক মদ্যপ অবস্থায় রয়েছে বুঝেও পুলিশ কার্যত একপ্রকার নিরুপায়। তবে এবার আর সেই সুযোগ নেই বাইক আরোহীদের।

অভিযোগ রাতের শহরে মদ্যপ অবস্থায় বেশিরভাগ চালকই হয়ে যান বেপরোয়া। বছরের পর বছর মদ্যপ চালকের বেপরোয়া গাড়ি চালানোর হাজারো ঘটনা ঘটলেও গত বছরের শেষে গরফা থানা এলাকায় এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ মদ্যপ অবস্থায় থাকার জন্য বেপরোয়া হয়ে যান গাড়ির চালকেরা। তাই এরকম ব্যবস্থা৷ এবার থেকে হাসপাতালে মদ্যপ অবস্থা প্রমাণ হবার সঙ্গে সঙ্গেই আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

কলকাতা পুলিশের এক অফিসার এই নতুন নির্দেশকে সাধুবাদ জানালেন। কারণ তাঁর মতে অনেক সময়ই বেপরোয়া বাইক বা গাড়ি হাতের নাগালে এসেও অধরা থেকে যায়। কারণ নিয়মের বেড়াজালে বেপরোয়া গাড়িকে লাগাম টানতে অনেক সময় সমস্যায় পড়তে হয় কর্তব্যরত পুলিশ অফিসারদের। রাতের শহরে নাকা চেকিং-এ মদ্যপ গাড়ি বা বাইক চালকদের দেখলেই আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া তাই কার্যত সমস্যারই ছিল। এদিন ডেপুটি কমিশনার ট্রাফিক রুপেশ কুমার জানান, দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার পর এবার কলকাতা পুলিশ মদ্যপ অবস্থায় গাড়ির কোনও চালককে দেখতে পেলেই নিয়ে যাবে হাসপাতালে।




%d bloggers like this: