বিজেপির নেতা কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায়কে লক্ষ্য করে গুলি : কর্মীসমর্থকদের থানা ঘেরাও

রামকৃষ্ণ চ্যাটার্জী/ মহেশ্বর, পশ্চিম বর্ধমান : ভোটের আগে উত্তপ্ত বঙ্গরাজনীতি। একের পর এক আক্রমণের শিকার হচ্ছেন বিজেপি নেতা কর্মীরা এমনই অভিযোগ উঠেছে দলের তরফ থেকে ৷
এবার বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য কৃষ্ণেন্দু মুখোপাধ্যায়কে লক্ষ্য করে গুলি চালালো দুষ্কৃতীরা। একটুর জন্যে প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন তিনি। এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোলে।

কৃষ্ণেন্দুবাবু ১ জানুয়ারি দলের কাজে কলকাতায় গিয়েছিলেন। রবিবার রাত ১১ টা ৪৫ মিনিটা নাগাদ তিনি বাড়ি ফিরছিলেন। এদিকে বাড়ির গ্যারাজে গাড়ি ঢোকানোর সময় তিন জন দুষ্কৃতী মোটরসাইকেলে চেপে এসে কৃষ্ণেন্দুবাবুকে গুলি করে তড়িঘড়ি পালিয়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি ৷

কৃষ্ণেন্দু মুখার্জি সাদা একটি টয়োটা ইনোভা গাড়িতে বসে ছিলেন। দুষ্কৃতিদের সেই গুলি লাগে গাড়িতে।
কৃষ্ণেন্দুবাবুর অভিযোগ, তৃণমূলের নেতৃত্বে তাঁর উপর এই হামলা চালানো হয়েছে। তবে বরাবরের মতোই তৃণমূল এটি অস্বীকার করে বলছে ‘বিজেপি এখন নিজেদের ভিতরে দ্বন্দে ভুগছে’।

ঘটনার রেশ ধরে কৃষ্ণেন্দুবাবু বলছেন, গোটা রাজ্যে তৃণমূলের নেতৃত্বে বিজেপির উপর হামলা হচ্ছে। আমাদের ১৩৫ জন নেতাকর্মীকে খুন করা হয়েছে। ভগবানের অশেষ কৃপায় আমি এখনও বেঁছে আছি।

এদিকে এই ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই সোমবার সকাল থেকে সমগ্র পশ্চিম বর্ধমান জেলা জুড়ে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে।ঘেরাও করা হয় হীরাপুর থানা।তাদের দাবি নির্বাচন আসতে না আসতেই সারা রাজ‍্য জুড়ে বিজেপি কর্মীদের উপর হামলা চালাচ্ছে তৃনমুল আশ্রিত গুন্ডারা পুলিশ সব দেখেও কোন ব্যাবস্থা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন ।




%d bloggers like this: