সুপারি কিলার দিয়ে ছেলেকে খুন করল মা

নিজস্ব সংবাদদাতা,পশ্চিম বর্ধমান : সম্পত্তির জন্য সুপারি কিলার দিয়ে ছেলেকে খুনের অভিযোগ উঠেছে মায়ের বিরুদ্ধে । লাউদোহার পারুলিয়ার সেই স্বরূপ হত্যাকাণ্ডের তদন্তে নেমে পুলিশ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে । তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতে চলেছে ৷
পশ্চিম বর্ধমানের দুর্গাপুরের পারুলিয়ার সুলোচনা সৌ বড় ছেলের সঙ্গে পরিকল্পনা করে ছোট ছেলেকে খুনের দায়ে ধরা পড়েছেন। পুলিশের দাবী, বড়ছেলের প্ররোচনায় মানসিক রোগী ছোট ছেলেকে সুপারি কিলার দিয়ে খুন করিয়েছেন তিনি।

গত ৯ নভেম্বর প্রতাপপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের পিছনে আগাছার জঙ্গল থেকে উদ্ধার হয় পারুলিয়ার ৩২ বছরের যুবক স্বরূপ সৌ এর মৃতদেহ। নভেম্বরের আট তারিখ বিকালে তিনি বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। রাতে আর বাড়ি ফেরেনি । দেওয়া হয়নি থানায় খবর ।
নিহতের মা ও দাদা অরূপ, দু’জনেই দাবি করেন, স্বরূপের মাথায় গন্ডগোল থাকায় মাঝে মাঝেই বাড়ি থেকে চলে যেতেন। ফিরতেন কয়েকদিন পরে। এবারেও তাই হয়েছে ভেবে তাঁরা থানায় জানাননি।স্বরূপ এলাকায় বিজেপির কর্মী হিসাবে পরিচিত ছিলেন। তাঁর খুনে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে থানা ঘেরাও করে বিজেপি। বিজেপি অভিযোগ করে, তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা স্বরূপকে খুন করেছে। তৃণমূল অবশ্য অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে জানায়, পারিবারিক গন্ডগোল থেকে এই ঘটনা। এর সঙ্গে রাজনীতির কোনও যোগ নেই। ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ পারুলিয়ারই সুদয় মহান্ত নামে একজনকে গ্রেফতার করে। পুলিশের দাবি, জেরায় সুদয় জানায়, স্বরূপকে খুন করার জন্য তাঁর মা তাকে টাকা দিয়েছেন। সম্পত্তিজনিত কারণে মা ও বড়ছেলে এক হয়ে ছোট ছেলেকে খুন করিয়েছেন। পুলিশ সুলোচনাদেবী ও অরূপকে গ্রেফতার করেছে।




%d bloggers like this: