Splusnews Kolkata
শনিবার , ৭ মে ২০২২ | ১২ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. আন্তর্জাতিক
  2. কলকাতা
  3. খেলাধুলা
  4. চাকরী
  5. ট্রেন্ড
  6. দেশ
  7. পশ্চিমবঙ্গ
  8. প্রযুক্তি
  9. বানিজ্য
  10. বাংলাদেশ
  11. বিনোদন
  12. বিশেষ
  13. ভাইরাল
  14. মতামত
  15. রাজনীতি

বিজেপির ক্ষমতায় আসা নিয়ে ভবিষ্যদ্বানী করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়!

প্রতিবেদক
splusnews
মে ৭, ২০২২ ৪:২৫ পূর্বাহ্ণ
বিজেপির ক্ষমতায় আসা নিয়ে ভবিষ্যদ্বানী করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়!

ডেস্ক রিপোর্ট : ২০২৪ সালে কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসতে পারবে না বিজেপি। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবার দ্ব্যর্থহীন ভাষায় এই ভবিষ্যদ্বানী করলেন। বৃহস্পতিবার দলের বর্ষপূর্তির দিন নয়া তৃণমূল ভবনে সাংবাদিক বৈঠকে এই কথাই বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী ১০ মে থেকে আবার প্রশাসনিক বৈঠক করা হবে জানালেন তিনি।

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠান সেরে তৃণমূল ভবনে আসেন। সেখানে শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করেন। তারপর সাংবাদিক বৈঠক করে তিনি বলেন, ২০২৪ সালে কিছুতেই বিজেপি ক্ষমতায় আসবে না। ওঁর সব প্রশ্নের উত্তর আমি দেব না। তবে একটা কথা ওঁকে জিজ্ঞাসা করতে চাই, পেট্রপণ্য–ওষুধের দাম রোজ বাড়ছে। মানুষের পকেট থেকে টাকা কাটছে সেগুলি কী কাটমানি না ছাঁটমানি। ওঁকে জিজ্ঞেস করুন কাটমানির সংজ্ঞা কী? ওরা রোজ মিথ্যে কথা বলে।

তিনি আরও বলেন, রোজ বারবার একই কথা বলা মিথ্যেচার। ভ্রষ্টাচারের রাজনীতি করে বিজেপি। এক বছর পরে এসে তো অমিত শাহের মুখ লুকোনো উচিত।

সর্বশেষ - পশ্চিমবঙ্গ

আপনার জন্য নির্বাচিত
৩ জানুয়ারি থেকে জারি করা বিধি নিষেধ, বন্ধ করা হল স্কুল-কলেজসহ এইসব  প্রতিষ্ঠান!

৩ জানুয়ারি থেকে জারি করা বিধি নিষেধ, বন্ধ করা হল স্কুল-কলেজসহ এইসব প্রতিষ্ঠান!

প্রধানমন্ত্রীর নতুন ক্যাবিনেটে স্থান পেল নতুন মুখ, বাদ পড়লেন প্রবীন নেতারা

প্রধানমন্ত্রীর নতুন ক্যাবিনেটে স্থান পেল নতুন মুখ, বাদ পড়লেন প্রবীন নেতারা

আড়াই বছরের শিশুকন্যাকে অপহরণ! রুদ্ধশ্বাস উত্তেজনা হার

শিশুকন‍্যাকে অপহরনের পর মুক্তিপণ দাবী, পুলিশের তৎপরতায় উদ্ধার

জেনে নিন অগ্রহায়ণের কোন দিন  শুভ ও বিশেষ দিনক্ষণ!

জেনে নিন অগ্রহায়ণের কোন দিন  শুভ ও বিশেষ দিনক্ষণ!

অবশেষে জয় পেল মোহনবাগান

অবশেষে জয় পেল মোহনবাগান

জামনা গ্রামে দিনদুপুরে ধর্ষনের পর কলেজ ছাত্রীকে খুনের অভিযোগ: অভিযুক্ত ৩ শ্রমিক

জামনা গ্রামে দিনদুপুরে ধর্ষনের পর কলেজ ছাত্রীকে খুনের অভিযোগ: অভিযুক্ত ৩ শ্রমিক

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ নিয়ে মুখ খুলে বিতর্কে জড়ালেন অনুব্রত মণ্ডল!

তৃণমূল নেতা অনুব্রত মন্ডল কে তলব করল সিবিআই!

পেট্রোলের দাম বাড়ায় চালকদের মিষ্টিমুখ করিয়ে অভিনব প্রতিবাদ গড়বেতা তৃণমূল কংগ্রেসের

পেট্রোলের দাম বাড়ায় চালকদের মিষ্টিমুখ করিয়ে অভিনব প্রতিবাদ গড়বেতা তৃণমূল কংগ্রেসের

নিউজিল্যান্ডের ম্যাচ বাতিল : পাকিস্তানকে সুরক্ষিত ও নিরাপদ দাবি ক্রিকেটারের স্ত্রীর

নিউজিল্যান্ডের ম্যাচ বাতিল : পাকিস্তানকে সুরক্ষিত ও নিরাপদ দাবি ক্রিকেটারের স্ত্রীর

রাজ্য পুলিশকে সার্টিফিকেট দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়!   মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্য পুলিশকে কার্যত দরাজ সার্টিফিকেট দিলেন। বিধানসভায় তিনি বলেন, পুলিশ পুলিশের কাজ করছে। দুই – একজনের ভুল ভ্রান্তির জন্য, এমনটা নয় যে বাংলার পুলিশ কালো আর দিল্লির পুলিশ ভাল। বাংলার পুলিশের সঙ্গে একমাত্র স্কটল্যান্ডের পুলিশের তুলনা চলে।  পুলিশের দিক থেকে যে দু-একটা ভুল হয়েছে, সে কথা স্বীকার করে নিয়ে মমতার সংযোজন, পুলিশকে শুধু গালাগালি দিলে হবে না। দু’টো ঘটনা হয়েছে বলে রাজ্যটাকে বিক্রি করে দিতে হবে! দু’টো ঘটনার জন্য দিল্লির ২০০ ঘটনা ঢাকা পড়বে তা হয় না। একটা দুটো ভুল,শুধরে নেবে।  সাম্প্রতিক অতীতে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে বার বার প্রশ্ন উঠেছে। প্রথমে হাওড়ার আমতায় ছাত্রনেতা আনিস খানকে মৃত্যু, তারপর রবিবার একইদিনে রাজ্যের দুই কাউন্সিলরকে গুলি করে খুন। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠে গিয়েছে রাজ্যেই আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে। প্রশ্ন উঠেছে, রাজ্যের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদেরই যদি নিরাপত্তা না থাকে, তাহলে আম জনতা নিরাপত্তার আশা করবে কীভাবে? আর এরই মধ্যে বার বার কাঠগড়ায় দাড়িয়েছে পুলিশের ভূমিকা।   রাজ্য পুলিশ বা সিআইডির বদলে সিবিআই তদন্তের দাবি উঠেছে। বিরোধী বিজেপির তরফে বার বার অভিযোগ করা হয়েছে , পুলিসের রাজনীতিকরণ সব চেয়ে বেশি এখন হয়েছে এই রাজ্যে। তৃণমূলে যোগদানের জন্য বহু ক্ষেত্রে পুলিশ জোর করছে বলেও অভিযোগ।

রাজ্য পুলিশকে সার্টিফিকেট দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়! মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্য পুলিশকে কার্যত দরাজ সার্টিফিকেট দিলেন। বিধানসভায় তিনি বলেন, পুলিশ পুলিশের কাজ করছে। দুই – একজনের ভুল ভ্রান্তির জন্য, এমনটা নয় যে বাংলার পুলিশ কালো আর দিল্লির পুলিশ ভাল। বাংলার পুলিশের সঙ্গে একমাত্র স্কটল্যান্ডের পুলিশের তুলনা চলে। পুলিশের দিক থেকে যে দু-একটা ভুল হয়েছে, সে কথা স্বীকার করে নিয়ে মমতার সংযোজন, পুলিশকে শুধু গালাগালি দিলে হবে না। দু’টো ঘটনা হয়েছে বলে রাজ্যটাকে বিক্রি করে দিতে হবে! দু’টো ঘটনার জন্য দিল্লির ২০০ ঘটনা ঢাকা পড়বে তা হয় না। একটা দুটো ভুল,শুধরে নেবে। সাম্প্রতিক অতীতে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে বার বার প্রশ্ন উঠেছে। প্রথমে হাওড়ার আমতায় ছাত্রনেতা আনিস খানকে মৃত্যু, তারপর রবিবার একইদিনে রাজ্যের দুই কাউন্সিলরকে গুলি করে খুন। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠে গিয়েছে রাজ্যেই আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে। প্রশ্ন উঠেছে, রাজ্যের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদেরই যদি নিরাপত্তা না থাকে, তাহলে আম জনতা নিরাপত্তার আশা করবে কীভাবে? আর এরই মধ্যে বার বার কাঠগড়ায় দাড়িয়েছে পুলিশের ভূমিকা। রাজ্য পুলিশ বা সিআইডির বদলে সিবিআই তদন্তের দাবি উঠেছে। বিরোধী বিজেপির তরফে বার বার অভিযোগ করা হয়েছে , পুলিসের রাজনীতিকরণ সব চেয়ে বেশি এখন হয়েছে এই রাজ্যে। তৃণমূলে যোগদানের জন্য বহু ক্ষেত্রে পুলিশ জোর করছে বলেও অভিযোগ।