তারুন্যের ফ্যাশন নিয়ে হাজির এ্যান্জেলা ইভেন্ট : দ্যা রানওয়ে স্টোরি

শীশ্রা চৌধুরী, নিজস্ব প্রতিবেদক : শুরুটা বিংশ শতাব্দির প্রথমেই ৷ আর একবিংশ শতাব্দিতে এসে বলা চলে অন্যান্য উন্নত দেশগুলোর সমান তালে পাল্লা দিয়ে নারীরা এগিয়ে চলছে ৷ একজন নারী পরিবারের জন্য কতখানি অবদান রাখেন সেটা অনেক ক্ষেত্রে পুরুষ উপলব্ধিই করেনা ৷ আমাদের পুরুষতান্ত্রিক সমাজে নারীদের আষ্টেপৃষ্ঠে আবদ্ধ করে রাখতে চায় ৷ চলার পথে শত প্রতিবন্ধকতা পার করা কজন নারীর পক্ষে সম্ভব ? কজনই বা পারেন তার সাধ স্বপ্নকে বাস্তবতায় রূপ দিতে ? তবুও অনেকেই শত বাঁধা পায়ে ঠেলে বন্ধুর পথে পাড়ি জমায় ৷ অদম্য ইচ্ছা , চেষ্টা,কর্মতৎপরতাই তাকে একদিন সার্থক ও প্রতিষ্ঠিত করে গড়ে তোলে ৷

এমনই একজন নারীর কথা বলছি, যিনি নিজের চেষ্টায় হয়ে উঠেছেন একজন সফল নারী। তিনি এ্যান্জেলা ইভেন্ট এর কর্ণধর এ্যান্জেলা রাহা । তিনি একাধারে কলকাতার মেধাবী নারী উদ্যোক্তা, শোস্যাল এক্টিভিস্ট , ও ফ্যাশন জগতের এক স্বপ্নবাজ নারী।

এ্যান্জেলা ইভেন্ট বরাবরই তারুন্যকে প্রাধান্য দিয়ে আসছে ৷ এ্যান্জেলা নিজে একজন তরুন ইন্টারপ্রিনিওর ৷ তাই তরুনদের চাহিদা , ভাবনাটা মাথায় নিয়েই কাজ করতে খুব আগ্রহী ৷ একান্ত আলাপচারিতার তিনি জানিয়েছেন এবার তারই টিম ‘দ্যা এ্যান্জেলা ইভেন্ট’ আবারও নতুন চমক দিতে হাজির ৷ এবার মাঠ কাঁপাতে আসছে “দ্যা রানওয়ে স্টোরি’ ৷

এ্যান্জেলা ইভেন্ট বেশ আগে থেকেই বিনোদন জগতে বেশ পরিচিত নাম ৷ কলকাতার পরই শিলিগুড়িতে খোলা হচ্ছে নতুন শাখা ৷ এরই মাঝে তারা পদার্পন করতে যাচ্ছে ফ্যাশন জগতে ৷ ফ্যাশন জগতকে এক নতুন মাত্রা দিতে কাজ করে চলেছে এ্যান্জেলা ইভেন্ট ৷ ফ্যাশন মানুষের ব্যক্তিত্ব আর রুচির বহিঃপ্রকাশ ঘটায় ৷ অার তারুণ্যই এই ফ্যাশনের মূল লক্ষ্য ৷

এ্যান্জেলা ইভেন্ট এর এ্যাডভাইজার দীপান্জন বসাক তার ফ্যাশন শো এর অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে নিয়ে আসছেন ফ্যাশান শো “দ্যা রানওয়ে স্টোরি” ৷ আর বরাবরের মত এ্যান্জেলা রাহার আইডিয়া তো সাথে রয়েছেই ৷


এ বিষয়ে এ্যান্জেলা রাহা জানিয়েছেন “ইতিমধ্যেই বেশকিছু বড়সড় কোম্পানি এই ইভেন্ট এ যুক্ত হয়েছেন ৷ তবে পুরো আইডিয়া তিনি এই মূহূর্তে পাবলিক করতে ইন্টারেস্টেড নন ৷ বিনোদন ও ফ্যাশন জগতের অনেকেই এতে যুক্ত আছেন ৷

এ্যান্জেলা ইভেন্ট মুলত বিভিন্ন ইভেন্ট হোস্ট করে ৷ পিআর ,ব্রান্ডিং,মার্কেটিং,এ্যাওয়ার্ড শো সহ নানা ধরনের সামাজিক কার্যক্রম করে থাকে ৷

আমাদের উইডিং সেকশন চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে ৷ আশাকরছি ২০২১ সালে আমরা উইডিং সেকশনটিও চালু করতে পারবো ৷”




%d bloggers like this: