পৌর কর্পোরেশনের অস্থায়ী কর্মীর বিরুদ্ধে লক্ষাধিক টাকা জালিয়াতির অভিযোগ

মহেশ্বর দে, আসানসোল : আসানসোল পৌর কর্পোরেশনের কুলটি বুরো অফিসে কয়েক লক্ষ টাকার কেলেঙ্কারির ঘটনা প্রকাশে এসেছে। পৌর কর্পোরেশনের অস্থায়ী কর্মীদের বিরুদ্ধে লক্ষাধিক টাকা জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে। এই কর্মীর বিরুদ্ধে কুলটি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। একই সঙ্গে আশঙ্কা করা হচ্ছে যে এই কেলেঙ্কারীটি বেশ বড় হতে পারে। বর্তমানে আসামি পলাতক রয়েছে। তিনি তার সাথে নথিপত্র নিয়ে পালিয়ে গেছেন।

পৌর কর্পোরেশনের সহকারী প্রকৌশলী সতী প্রসাদ কোনার কুলটি থানায় দায়ের করা এফআইআর-এ বলা হয়েছে যে চিনাকুড়ি বাসিন্দা কুলটি অফিসের কর্মী সোমনাথ মাহাতো, পৌর কর্পোরেশনের নগদ অর্থ পিএনবি (পূর্বে ইউনাইটেড ব্যাংক) দামাগোদিয়া শাখায় জমা করতেন।
গত ২১ ডিসেম্বর কুলটি অফিসের ক্যাশিয়ার জয়দেব চর সোমনাথকে এক লাখ ৭৫ হাজার ২৫৬ টাকা জমা করার জন্য দিয়েছিলেন।
২৮ শে ডিসেম্বর, যখন ক্যাশিয়ার ব্যাঙ্কে যান, তখন তাকে জানানো হয় যে অ্যাকাউন্টে কোনও পরিমাণ অর্থ জমা করা হয়নি। সোমনাথ তখন থেকেই নিখোঁজ ছিলেন। ২ জানুয়ারিও তিনিও ফিরে আসেননি।
আশঙ্কা করা হচ্ছে যে এই কেলেঙ্কারীটি খুব বড় হতে পারে। লক্ষণীয় যে এর আগেও তাপস ঘোষ আসানসোল সদর দফতরে কোটি কোটি কেলেঙ্কারীতে ধরা পড়েছিল ।

কুলটি পৌরসভা আসানসোলের সাথে একীভূত হওয়ার পরে সেখানকার দায়িত্ব আসানসোলের ইঞ্জিনিয়ারকে দেওয়া হয়েছিল। তবে কয়েক বছর আগে তাকে আবারও সদর দফতরে ডেকে আনা হয়েছিল। এখন তার পরে এই কেলেঙ্কারির বিষয়টি প্রকাশ্যে এসেছে। কর্পোরেশন নিতিন সিংহানিয়া বলেছেন, মামলার তথ্য পাওয়ার পরে এফআইআর করা হয়েছে। পুলিশ মামলাটি তদন্ত করছে।




%d bloggers like this: