গর্ভপাতের হার বাড়িয়েছে বায়ু দূষণ

শ্রীশা চৌধূরী: চিকিৎসকদের মতে সাবধান না হলে আসতে চলেছে ঘোর বিপদ। বায়ুর অবস্থা ভালো না থাকায় আরও সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। বায়ুতে বেড়ে চলেছে দূষণ। তাই গর্ভপাতের মূল কারণ হয়ে উঠেছে বায়ুদূষণ। The Lancet Planetary Health Journal এ প্রকাশিত হয় যে বায়ুদূষণের জন্য দিনের পর দিন গর্ভপাতের পরিসংখ্যান বেড়ে চলেছে।

দিনের পর দিন গর্ভপাতের পরিসংখ্যান বেড়ে চলা শঙ্কিত করেছে বিশেষজ্ঞদের। The Lancet Planetary Health Journal এ উল্লেখ রয়েছে বিশেষজ্ঞরা দাবি করেছেন প্রতি বছর দক্ষিণ এশিয়াতে ৩৪৯৬৮১ সংখ্যক মহিলার গর্ভপাত হওয়ার কারণ হল বায়ুর মধ্যে থাকা ক্ষুদ্র ধূলিকণা সহ বিষাক্ত উপাদান। গর্ভপাতের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০০০ সাল থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে গর্ভপাত বেড়েছে ৭ শতাংশ। গর্ভাবস্থায় যা জিনিস ক্ষতি করেছে তার মধ্যে সমীক্ষায় দেখা গেছে বায়ুতে উপস্থিত প্রতি ঘনমিটারে ১০ মাইক্রোগ্রামের জন্য ২৯ শতাংশ। গোটা বিশ্বের মধ্যে দক্ষিণ এশিয়ার বায়ুর হাল অতি নিম্নস্তরের। তা নিয়ে World Health Organization বিশেষ চিন্তিত হয়ে সমিক্ষায় উল্লেখ করেছে যে এতদিন গর্ভপাতের জন্য দায়ী ছিল মানষিক অসুস্থতা, অর্থনৈতিক ও শ্বারীরিক সমস্যা। কিন্তু এবার তালিকায় গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে বায়ুদূষণ কে।
বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, এখনই যদি প্রশাসন থেকে নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা না করে, তাহলে আগামী কয়েক বছরে গর্ভপাতের পরিমাণ প্রচুর পরিমাণে বেড়ে যাবে।




%d bloggers like this: