মাথায় ভারী বস্তুর আঘাত! এক ব্যাক্তির অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য বেলদায়

শান্তনু রায়, বেলদা: মাথায় আঘাত নিয়েএক ব্যক্তির অস্বাভাবিক মৃত্যুকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল পশ্চিম মেদিনীপুরের বেলদা থানার জামাডাঙ্গা গ্রামে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ঐ ব্যক্তির ছেলেকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পুলিশ ।

ঘটনায় জানা গেছে, বেলদা থানার জামাডাঙ্গা গ্রামের ৪০ বছর বয়সী নারায়ণ সাঁতরাকে গতকাল মাথায় আঘাত নিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে বেলদা গ্রামীণ হাসপাতালে ও পরে অবস্থার অবনতি হলে কলকাতা রেফার করা হয়। কলকাতা নিয়ে যাওয়ার পথে ডেবরার টোলপ্লাজার কাছে মৃত্যু হয় নারায়ণ বাবুর। এরপর ঘটনার খবর পেয়ে বেলদা থানার পুলিশ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে মৃতদেহ সংগ্রহ করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার পর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। ঘটনার পর এলাকায় ঐ ব্যক্তির অস্বাভাবিক মৃত্যু কে ঘিরে ভিন্ন মত উঠে আসায় পুলিশ ঐ ব্যক্তির ছেলে বাপি ওরফে সুখেন্দু সাঁতারাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে ।

এলাকাবাসীদের দাবী, মোবাইলে গেম খেলা নিয়ে বাবা ছেলে দ্বন্দ্বে বাবার মাথায় হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে ছেলে আর তাতে গুরুতর আহত হন নারায়ণ বাবু পরে কলকাতা নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় তাঁর। যদিও এই অভিযোগ খন্ডন করে পরিবারের দাবি, কাজ করতে গিয়ে দুর্ঘটনা বশত মাথায় হাতুড়ি পড়ে আহত হন নারায়ণ বাবু। এদিকে ঘটনার গুরুত্ব বুঝে মৃতদেহ সংগ্রহ করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে বেলদা থানার পুলিশ। তদন্তের স্বার্থে ছেলেকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পুলিশ। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার পর বিষয়টি নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।




%d bloggers like this: