ক্ষিদের জ্বালায় ২ মাসের শিশুকে বিক্রি


নিজস্ব সংবাদদাতা পশ্চিম মেদিনীপুর:

যখন করোনা পরিস্থিতিতে অসহায় অবস্থার মধ্য দিয়ে মানুষ দিন কাটাচ্ছেন। তখন বাড়িতে খাবারের অভাব দেখা দিয়েছে। তাই বাড়িতে থাকা পাঁচ বছরের ছেলে ও আড়াই বছরের মেয়েকে বাঁচানোর জন্য বাবা-মা দুই মাসের সন্তানকে তিন হাজার টাকায় বিক্রি করল। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ঘাটাল এলাকায়। ঘাটালের বাসিন্দা বাপন ধাড়া ও তার স্ত্রী তাপসী ধাড়া বাড়িতে থাকা ছেলে মেয়েকে খাওয়ানোর জন্য মাত্র দু মাসের শিশু সন্তানকে তিন হাজার টাকায় বিক্রি করে দেয় হাওড়া জেলার শ্যামপুর এলাকায় এক নিঃসন্তান দম্পতি কাছে। দুই মাসের শিশু বিক্রির বিষয়টি জানাজানি হলে ঘাটাল এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে । খবর পেয়ে ঘাটাল থানার পুলিশ তদন্ত করে ওই শিশুটিকে হাওড়া জেলার শ্যামপুর এলাকা থেকে এক নিঃসন্তান দম্পতির কাছ থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। শিশুটি বর্তমানে ঘাটাল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঘাটাল এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে ।খাবারের জন্য দু মাসের শিশু সন্তানকে বিক্রি করার ঘটনা নজিরবিহীন বলে এলাকার বাসিন্দারা মনে করেন। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে কি কারণে ওই দম্পতি শিশুটিকে বিক্রি করেছিল তা খতিয়ে দেখার কাজ শুরু করেছে। তবে ওই শিশুটির বাবা ও মা বলেন তাদের হাতে কোন টাকা নেই।তাই বাড়িতে থাকা এক ছেলে ও মেয়ে কে দুটো খাওয়ানোর জন্য শুধু মাত্র অভাবের তাড়নায় একপ্রকার বাধ্য হয়ে তারা তাদের দুইমাসের শিশু কে তিন হাজার টাকায় বিক্রি করে দিয়ে ছিলেন। বাড়িতে থাকা এক ছেলে ও মেয়েকে খাইয়ে বাঁচিয়ে রাখার জন্য তিন হাজার টাকায় শিশুটিকে তারা বিক্রি করেছিলেন বলে জানতে পেরে পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিয়েছে। শিশুটি বর্তমানে ঘাটাল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে রয়েছে।ঘাটাল থানার পুলিশ ওই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।




%d bloggers like this: