কন্যা সন্তান হওয়ায় ৫০০ টি বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষরোপণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, পূর্ব মেদিনীপুর:- গত ১ লা নভেম্বর ২০১৯ সালে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পাঁশকুড়া এলাকার বাসিন্দা মহাদেব মান্নার পরিবারে কন্যা সন্তান মনামীর শুভাগমন ঘটে, সেই দিনই মহাদেব বাবু সিদ্ধান্ত নিয়ে ছিলেন মেয়ের কল্যাণ কামনা ও দূষণ মুক্ত পরিবেশ গড়ার লক্ষ্যে ৫০০ টি বৃক্ষরোপণ করবেন। তাই শুক্রবার থেকে পাঁশকুড়ার মধুসূদন বাড়ে প্রায় ৫০০ টি গাছ লাগানোর কর্মসূচি গ্রহণ করেন তিনি, বর্তমান করোনা ভাইরাসের কারণে সকলেই গৃহবন্দী, বিশ্ব প্রকৃতি আজ দূষণ জীব বৈচিত্র ও পরিবেশের ভারসাম্যহীনতার আঘাতে জর্জরিত রক্তাক্ত ও মানুষের ক্রমাগত লোভের কারণে উদ্ভিদ জগত আজ নষ্টের মুখে ও গত আমফান ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যাওয়া গাছের অভাব পূরণের জন্য এই উদ্যোগ নিয়েছেন বলে জানান মহাদেব মান্না। বাবা হিসেবে সন্তানকে যথার্থ শিক্ষায় শিক্ষিত করে এক জন চরিত্রবান সুনাগরিক করে তোলার যেমন কর্তব্য, তেমনি মেয়ে যাতে বিশ্ব প্রকৃতির কোলে সুন্দর ভাবে বেঁচে থাকতে পারে সেটার ব্যবস্থা করা ও আমার অন্য তম দায়িত্ব ও কর্তব্য বলে মনে করেছেন মহাদেব বাবু।
এই কারণে মেয়ে মনামীর বস বাসের উপযোগী পৃথিবী গড়ে তোলার লক্ষ্যে (বট,অস্বশ্ত ১৫০টি, মহানিম ৫০, আম, জাম, কাঁঠাল ১০০, কৃষ্ণচূড়া রাধাচূড়া ছাতিম বকুল জারুর ২০০ টা লাগানোর প্রয়াস নিয়েছেন। এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন সেক সমিরুদ্দিন পৌর পিতা ৪ নম্বর ওয়ার্ড পাঁশকুড়া পৌরসভার, গৌতম রায় s.i পাঁশকুড়া থানা, সাধন চন্দ্র দাস, মানস কুমার দাস, চিত্ত দাস ঠাকুর, সহ অন্যান্য। আর এই কর্মসূচিকে থেকে যথেষ্ট হয়েছে এলাকার মানুষ সহ প্রশাসনের আধিকারিকের।




%d bloggers like this: